১০:০৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বান্দরবানে কেএনএফ’র গুলিতে সেনা কর্মকর্তা নিহত

বান্দরবানের রোয়াংছড়িতে সেনাবাহিনীর টহল দলের উপর কুকি চিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট (কেএনএফ) তথা কুকি চিন ন্যাশনাল আর্মি (কেএনএ) অতর্কিত গুলি বর্ষণের ঘটনায় নাজিম উদ্দিন নামে এক সেনাবাহিনীর মাস্টার ওয়ারেন্ট অফিসার নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও দুই সেনা সদস্য।
রোববার দুপুর ১ টার দিকে রনিন পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
নিহত সেনা কর্মকর্তা রংপুর সদরের ঘাঘটপাড়া গ্রামের বাসিন্দা মৃত শমসের আলী ছেলে।
সোমবার (১৩ মার্চ) আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) নিজস্ব ওয়েবসাইটে জানিয়েছে, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে জাতীয় শিশু দিবস ও মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে দুর্গম পাহাড়ী এলাকায় মা ও শিশুদের বিনামূল্যে স্বাস্থ্য সেবা প্রদানের জন্য যাচ্ছিলেন। এসময় দলের নিরাপত্তায় নিয়োজিত সেনাসদস্যদের উপর কুকি-চিন ন্যাশনাল আর্মি (কেএনএ)’র সদস্যরা অতর্কিত গুলিবর্ষণ করে। এ সময় সেনাবাহিনীর মাস্টার ওয়ারেন্ট অফিসার নাজিম উদ্দিন গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। এ ঘটনায় আরও দুই সেনা সদস্য আহত হন। আহত দুই সেনাসদস্য বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এদিকে এ ঘটনার পর থেকে এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

ট্যাগস :

বান্দরবানে কেএনএফ’র গুলিতে সেনা কর্মকর্তা নিহত

প্রকাশ : ০৮:০৭:৫৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ মার্চ ২০২৩

বান্দরবানের রোয়াংছড়িতে সেনাবাহিনীর টহল দলের উপর কুকি চিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট (কেএনএফ) তথা কুকি চিন ন্যাশনাল আর্মি (কেএনএ) অতর্কিত গুলি বর্ষণের ঘটনায় নাজিম উদ্দিন নামে এক সেনাবাহিনীর মাস্টার ওয়ারেন্ট অফিসার নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও দুই সেনা সদস্য।
রোববার দুপুর ১ টার দিকে রনিন পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
নিহত সেনা কর্মকর্তা রংপুর সদরের ঘাঘটপাড়া গ্রামের বাসিন্দা মৃত শমসের আলী ছেলে।
সোমবার (১৩ মার্চ) আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) নিজস্ব ওয়েবসাইটে জানিয়েছে, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে জাতীয় শিশু দিবস ও মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে দুর্গম পাহাড়ী এলাকায় মা ও শিশুদের বিনামূল্যে স্বাস্থ্য সেবা প্রদানের জন্য যাচ্ছিলেন। এসময় দলের নিরাপত্তায় নিয়োজিত সেনাসদস্যদের উপর কুকি-চিন ন্যাশনাল আর্মি (কেএনএ)’র সদস্যরা অতর্কিত গুলিবর্ষণ করে। এ সময় সেনাবাহিনীর মাস্টার ওয়ারেন্ট অফিসার নাজিম উদ্দিন গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। এ ঘটনায় আরও দুই সেনা সদস্য আহত হন। আহত দুই সেনাসদস্য বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এদিকে এ ঘটনার পর থেকে এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।