ঢাকা ০৫:৪৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন-২০২৩

গাজীপুর সিটি ভোটে বাধা দিলেই এ্যাকশন: নির্বাচন কমিশন

রাজধানী লাগোয়া গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ভোট ২৫ মে। প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণা শেষ হবে মঙ্গলবার মধ্যরাতে। এখন শেষ মূহুর্তে মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন প্রার্থীরা।
এরই মধ্যে ভোট সুষ্ঠু হবে কিনা তা নিয়ে প্রার্থীরা নানা শঙ্কার কথা জানাচ্ছেন। প্রচারণায় হামলা নিয়েও উঠছে অভিযোগ পাল্টা অভিযোগ।
তবে সব শঙ্কা উড়িয়ে দিচ্ছে নির্বাচন কমিশন। ইসি বলছে, নির্বাচনে অনিয়ম হলে শুধু ভোট বন্ধ নয়, আগের চেয়ে আরও কঠোর হবেন তারা।
নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর সোমবার নিজ দফতরে সাংবাদিকদের সাফ জানিয়েছেন, কোন প্রার্থীর এজেন্ট বা ভোটারকে বাধা দেয়া হলে সাথে সাথে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
গাজীপুর সিটি নির্বাচন পরিস্থিতি কি কমিশনের নিয়ন্ত্রণে আছে? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর নির্বাচন নিয়ন্ত্রণে না থাকার প্রমাণ চান। বলেন, গাজীপুরে ভোট ভালো না হওয়ার কোন কারণ নেই।
তিনি বলেন, ‘ভোটের পরিবেশ শুধু বাংলাদেশেরই না, এই পুরো উপমহাদেশের কনটেক্সটে ভালো আছে। নির্বাচনের দিন পর্যন্ত, ফলাফল পর্যন্ত ভালো থাকবে। গাইবান্ধাতে শুধু নির্বাচন বন্ধ করা হয়েছিলো। এখানে তার চেয়েও কঠিন এ্যাকশন হতে পারে।
মো. আলমগীর বলেন, ‘কোনো ভোটার বা এজেন্টকে কোনো রকম বাধা দিলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে, সে যেই হোক। কোনো ভোটারকে বা এজেন্টকে বাধা দিলে সেটার খবর আছে। যে বাধা দেবে তার বিরুদ্ধে এ্যাকশন হবে।
আপনি ঘরে বসে খালি বলবেন যে আমাকে যেতে দেয় নি, এসব কথা বার্তা চলবে না। আপনার এজেন্ট নিয়ে আসেন, আমি গিয়ে দিয়ে আসবো। রিটার্নিং অফিসার, মেজিস্ট্রেট নিজে গিয়ে এজেন্টকে পৌছে দিয়ে আসবে।
গাজীপুরে এবার মেয়র পদে নির্বাচন করছেন ৮ জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৩৯ জন এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৭৭ জন।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে যুদ্ধ বিরতি চুক্তিতে বাধা দেয়ার অভিযোগ

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন-২০২৩

গাজীপুর সিটি ভোটে বাধা দিলেই এ্যাকশন: নির্বাচন কমিশন

আপডেট সময় : ০৬:৩৪:৫১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ মে ২০২৩

রাজধানী লাগোয়া গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ভোট ২৫ মে। প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণা শেষ হবে মঙ্গলবার মধ্যরাতে। এখন শেষ মূহুর্তে মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন প্রার্থীরা।
এরই মধ্যে ভোট সুষ্ঠু হবে কিনা তা নিয়ে প্রার্থীরা নানা শঙ্কার কথা জানাচ্ছেন। প্রচারণায় হামলা নিয়েও উঠছে অভিযোগ পাল্টা অভিযোগ।
তবে সব শঙ্কা উড়িয়ে দিচ্ছে নির্বাচন কমিশন। ইসি বলছে, নির্বাচনে অনিয়ম হলে শুধু ভোট বন্ধ নয়, আগের চেয়ে আরও কঠোর হবেন তারা।
নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর সোমবার নিজ দফতরে সাংবাদিকদের সাফ জানিয়েছেন, কোন প্রার্থীর এজেন্ট বা ভোটারকে বাধা দেয়া হলে সাথে সাথে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
গাজীপুর সিটি নির্বাচন পরিস্থিতি কি কমিশনের নিয়ন্ত্রণে আছে? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর নির্বাচন নিয়ন্ত্রণে না থাকার প্রমাণ চান। বলেন, গাজীপুরে ভোট ভালো না হওয়ার কোন কারণ নেই।
তিনি বলেন, ‘ভোটের পরিবেশ শুধু বাংলাদেশেরই না, এই পুরো উপমহাদেশের কনটেক্সটে ভালো আছে। নির্বাচনের দিন পর্যন্ত, ফলাফল পর্যন্ত ভালো থাকবে। গাইবান্ধাতে শুধু নির্বাচন বন্ধ করা হয়েছিলো। এখানে তার চেয়েও কঠিন এ্যাকশন হতে পারে।
মো. আলমগীর বলেন, ‘কোনো ভোটার বা এজেন্টকে কোনো রকম বাধা দিলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে, সে যেই হোক। কোনো ভোটারকে বা এজেন্টকে বাধা দিলে সেটার খবর আছে। যে বাধা দেবে তার বিরুদ্ধে এ্যাকশন হবে।
আপনি ঘরে বসে খালি বলবেন যে আমাকে যেতে দেয় নি, এসব কথা বার্তা চলবে না। আপনার এজেন্ট নিয়ে আসেন, আমি গিয়ে দিয়ে আসবো। রিটার্নিং অফিসার, মেজিস্ট্রেট নিজে গিয়ে এজেন্টকে পৌছে দিয়ে আসবে।
গাজীপুরে এবার মেয়র পদে নির্বাচন করছেন ৮ জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৩৯ জন এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৭৭ জন।