ঢাকা ০৫:১০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এনআইডি ছাড়াই কেনা যাবে ট্রেনের স্ট্যান্ডিং টিকিট

জাতীয় পরিচয়পত্র, জন্মনিবন্ধন সনদ বা পাসপোর্ট দিয়ে নিবন্ধন করে গত ১ মার্চ থেকে শুরু হয় ট্রেনের টিকিট কাটা। বাধ্যতামূলক নতুন এ নিয়মের কারণে গত দু’দিনে বাংলাদেশ রেলওয়ের আয় অনেকটাই কমেছে। সে জন্য স্ট্যান্ডিং টিকিট (আসনবিহীন) কিনতে এনআইডি বা জন্ম নিবন্ধনের বাধ্যবাধকতা উঠিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে।
শুক্রবার দুপুরে বাংলাদেশ রেলওয়ের চিফ কমার্শিয়াল ম্যানেজার (পশ্চিম) সুজিত কুমার বিশ্বাস এ তথ্য জানান।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশনের প্রধান বুকিং সহকারী কবির হোসেন তালুকদার জানান, স্ট্যান্ডিং টিকিট ক্রয় করতে এনআইডি বা জন্ম নিবন্ধন লাগবে না। বৃহস্পতিবার মধ্যরাত থেকে অনলাইন ও অফলাইনে স্ট্যান্ডিং টিকিট ক্রয় উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে।
এ বিষয়ে বাংলাদেশ রেলওয়ে থেকে তাদেরকে মৌখিক নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে জানান রেলের এই কর্মকর্তা।
কবির হোসেন তালুকদার আরও জানান, প্রতিদিন ব্রাহ্মণবাড়িয়া স্টেশন থেকে আড়াই হাজার থেকে তিন হাজার যাত্রী যাতায়াত করেন। এ স্টেশন থেকে সরকার প্রতি মাসে কোটি টাকার বেশি আয় করে। অথচ নিবন্ধন করে টিকিট ক্রয়ে বাধ্যবাধকতা করায় কিছুটা সমস্যা তৈরি হয়েছে। এতে করে যাত্রী কমে যাওয়ায় গত দুই দিনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশন চার লাখ টাকা রাজস্ব হারিয়েছে।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে যুদ্ধ বিরতি চুক্তিতে বাধা দেয়ার অভিযোগ

এনআইডি ছাড়াই কেনা যাবে ট্রেনের স্ট্যান্ডিং টিকিট

আপডেট সময় : ০৭:৪১:১৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩ মার্চ ২০২৩

জাতীয় পরিচয়পত্র, জন্মনিবন্ধন সনদ বা পাসপোর্ট দিয়ে নিবন্ধন করে গত ১ মার্চ থেকে শুরু হয় ট্রেনের টিকিট কাটা। বাধ্যতামূলক নতুন এ নিয়মের কারণে গত দু’দিনে বাংলাদেশ রেলওয়ের আয় অনেকটাই কমেছে। সে জন্য স্ট্যান্ডিং টিকিট (আসনবিহীন) কিনতে এনআইডি বা জন্ম নিবন্ধনের বাধ্যবাধকতা উঠিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে।
শুক্রবার দুপুরে বাংলাদেশ রেলওয়ের চিফ কমার্শিয়াল ম্যানেজার (পশ্চিম) সুজিত কুমার বিশ্বাস এ তথ্য জানান।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশনের প্রধান বুকিং সহকারী কবির হোসেন তালুকদার জানান, স্ট্যান্ডিং টিকিট ক্রয় করতে এনআইডি বা জন্ম নিবন্ধন লাগবে না। বৃহস্পতিবার মধ্যরাত থেকে অনলাইন ও অফলাইনে স্ট্যান্ডিং টিকিট ক্রয় উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে।
এ বিষয়ে বাংলাদেশ রেলওয়ে থেকে তাদেরকে মৌখিক নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে জানান রেলের এই কর্মকর্তা।
কবির হোসেন তালুকদার আরও জানান, প্রতিদিন ব্রাহ্মণবাড়িয়া স্টেশন থেকে আড়াই হাজার থেকে তিন হাজার যাত্রী যাতায়াত করেন। এ স্টেশন থেকে সরকার প্রতি মাসে কোটি টাকার বেশি আয় করে। অথচ নিবন্ধন করে টিকিট ক্রয়ে বাধ্যবাধকতা করায় কিছুটা সমস্যা তৈরি হয়েছে। এতে করে যাত্রী কমে যাওয়ায় গত দুই দিনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশন চার লাখ টাকা রাজস্ব হারিয়েছে।