ঢাকা ০৩:৩২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গুলিস্তানে বিস্ফোরণ: ভবন মালিকসহ কয়েকজন ডিবি হেফাজতে

রাজধানীর গুলিস্তানে ভবনে বিস্ফোরণের ঘটনায় ভবনটির মালিকসহ কয়েকজনকে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) হেফাজতে নিয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে তাদের।
বুধবার (৮ মার্চ) অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ডিবি) মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ এ তথ্য জানান।
ভবনের মালিক ও তত্ত্বাবধায়ককে আটক করা হয়েছে কি না, মোহাম্মদ হারুন অর রশীদের কাছে জানতে চাইলে সাংবাদিকদের বলেন, আমরা কাউকে আটক করিনি। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আমরা বাড়ির মালিক, দোকান মালিকদের ডেকেছি, তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করছি। যারা আহত হয়েছেন, তাদের সঙ্গেও কথা বলছি।
তিনি বলেন, তাদের কাছে আমরা জানতে চাইবো, নিয়ম অনুযায়ী বেজমেন্টে দোকান দেওয়ার কথা না, সুয়ারেজ লাইন, সেপটিক ট্যাংক, ওয়াটার রিজার্ভার এগুলো নিয়মিত রক্ষণাবেক্ষণ হতো কি না, তা আমরা জানতে চাইবো।
ডিবি প্রধান আরও বলেন, কার অবহেলায় এই হতাহতের ঘটনা ঘটলো, তা জানতে জিজ্ঞাসাবাদ করছি। এছাড়া বাহির থেকে কেউ এটা ঘটিয়েছে কি না বা এসব ঘটানোর সুযোগ আছে কি না, তা আমরা খতিয়ে দেখছি।
মঙ্গলবার বিকেল পৌনে পাঁচটার দিকে গুলিস্তানে বিআরটিসির বাস কাউন্টারের কাছে সিদ্দিকবাজারে কুইন্স স্যানিটারি মার্কেট হিসেবে পরিচিত সাততলা ভবনে বিস্ফোরণ ঘটে।
এতে পাশের সাততলা ও পাঁচতলা দুটি ভবনও ক্ষতিগ্রস্ত হয়। কুইন্স মার্কেটের সাততলা ভবনটির বেজমেন্ট, প্রথম ও দ্বিতীয়তলা বিধ্বস্ত হয়। আর পাঁচতলা ভবনের নিচতলা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
এ বিস্ফোরণে অন্তত ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন প্রায় শতাধিক ব্যক্তি। নিখোঁজ আছেন তিনজন।

আপলোডকারীর তথ্য

নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে যুদ্ধ বিরতি চুক্তিতে বাধা দেয়ার অভিযোগ

গুলিস্তানে বিস্ফোরণ: ভবন মালিকসহ কয়েকজন ডিবি হেফাজতে

আপডেট সময় : ১২:৪২:৪৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ মার্চ ২০২৩

রাজধানীর গুলিস্তানে ভবনে বিস্ফোরণের ঘটনায় ভবনটির মালিকসহ কয়েকজনকে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) হেফাজতে নিয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে তাদের।
বুধবার (৮ মার্চ) অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ডিবি) মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ এ তথ্য জানান।
ভবনের মালিক ও তত্ত্বাবধায়ককে আটক করা হয়েছে কি না, মোহাম্মদ হারুন অর রশীদের কাছে জানতে চাইলে সাংবাদিকদের বলেন, আমরা কাউকে আটক করিনি। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আমরা বাড়ির মালিক, দোকান মালিকদের ডেকেছি, তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করছি। যারা আহত হয়েছেন, তাদের সঙ্গেও কথা বলছি।
তিনি বলেন, তাদের কাছে আমরা জানতে চাইবো, নিয়ম অনুযায়ী বেজমেন্টে দোকান দেওয়ার কথা না, সুয়ারেজ লাইন, সেপটিক ট্যাংক, ওয়াটার রিজার্ভার এগুলো নিয়মিত রক্ষণাবেক্ষণ হতো কি না, তা আমরা জানতে চাইবো।
ডিবি প্রধান আরও বলেন, কার অবহেলায় এই হতাহতের ঘটনা ঘটলো, তা জানতে জিজ্ঞাসাবাদ করছি। এছাড়া বাহির থেকে কেউ এটা ঘটিয়েছে কি না বা এসব ঘটানোর সুযোগ আছে কি না, তা আমরা খতিয়ে দেখছি।
মঙ্গলবার বিকেল পৌনে পাঁচটার দিকে গুলিস্তানে বিআরটিসির বাস কাউন্টারের কাছে সিদ্দিকবাজারে কুইন্স স্যানিটারি মার্কেট হিসেবে পরিচিত সাততলা ভবনে বিস্ফোরণ ঘটে।
এতে পাশের সাততলা ও পাঁচতলা দুটি ভবনও ক্ষতিগ্রস্ত হয়। কুইন্স মার্কেটের সাততলা ভবনটির বেজমেন্ট, প্রথম ও দ্বিতীয়তলা বিধ্বস্ত হয়। আর পাঁচতলা ভবনের নিচতলা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
এ বিস্ফোরণে অন্তত ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন প্রায় শতাধিক ব্যক্তি। নিখোঁজ আছেন তিনজন।