ঢাকা ০৬:৩৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জীবননগর দেহাটি গ্রামের মিঠু মেম্বার-সহ গ্রেফতার ২, আত্মসাৎকৃত ৬৬৭ বস্তা ছোলা উদ্ধার 

যশোর জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে প্রতারণাপূর্বক আত্মসাৎকৃত ৬৬৭ বস্তা ছোলা উদ্ধারসহ দুই আসামি গ্রেফতার হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হলো যশোর কোতয়ালী থানাধীন বসুন্দিয়া গ্রামের মৃত আবু বকর সিদ্দিকের ছেলে হাসান আল মামুন রাজন (৩০) এবং চুয়াডাঙ্গার জীবননগর থানাধীন দেহাটি গ্রামের মোদাচ্ছের রহমানের ছেলে খাসিয়ার রহমান মিঠু (৪০)। সোমবার (৩রা এপ্রিল) জীবননগর থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

ডিবি জানায়, বেনাপোল পোর্ট থানাধীন বেনাপোল স্থল বন্দরের গেটের সামনে জনৈক আ. মান্নানের আছিয়া ট্রান্সপোর্ট নামে একটা প্রতিষ্ঠান আছে। মেসার্স সৈকত ট্রেডার্স, চাকতাই কোতয়ালী, চিটাগাং ভারত হতে বিভিন্ন মালামাল বাংলাদেশে আমদানি করে। আছিয়া ট্রেডার্স উক্ত প্রতিষ্ঠানের মালামাল দেশের বিভিন্ন জেলায় সরবরাহ করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় উক্ত ট্রেডার্সের আমদানিকৃত ছোলার মধ্যে হতে ৬৬৭ বস্তা ছোলা যার ওজন ২০ টন ৯০ কেজি, যার মূল্য ১৬ লক্ষ টাকা। যা, সাগর ট্রেডার্স রাজবাড়ীতে পাঠানোর জন্যে ২৮শে মার্চ ট্রাক লোড করে পাঠায়। পরবর্তীতে ট্রাকের ড্রাইভার ও মালিক মিলে আমদানিকৃত ছোলা আত্মসাৎ করে অন্যত্র বিক্রি করে দেয়। বাদীর উক্তরুপ অভিযোগের ভিত্তিতে বেনাপোল পোর্ট থানায় মামলা দায়ের করা হয়।

মামলা দায়েরের পর যশোর পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদারের সার্বিক দিকনির্দেশনায় যশোর জেলা গোয়েন্দা শাখার অফিসার ইনচার্জ রুপণ কুমার সরকারের তত্ত্বাবধানে এসআই নূর ইসলাম, এসআই শফি আহমেদ রিয়েল, এসআই শামীম হোসেনগনের সমন্বয়ে একটা চৌকস টিম তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় আসামিদের অবস্থান সনাক্ত করে সোমবার (৩রা এপ্রিল) চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ঘটনায় জড়িত আসামি হাসান আল মামুন রাজন এবং খাসিয়ার রহমান মিঠুকে গ্রেফতার করেন এবং আত্মসাৎকৃত ৬৬৭ বস্তা ছোলা উদ্ধার করেন।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে যুদ্ধ বিরতি চুক্তিতে বাধা দেয়ার অভিযোগ

জীবননগর দেহাটি গ্রামের মিঠু মেম্বার-সহ গ্রেফতার ২, আত্মসাৎকৃত ৬৬৭ বস্তা ছোলা উদ্ধার 

আপডেট সময় : ০২:২৫:৪৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৫ এপ্রিল ২০২৩
যশোর জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে প্রতারণাপূর্বক আত্মসাৎকৃত ৬৬৭ বস্তা ছোলা উদ্ধারসহ দুই আসামি গ্রেফতার হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হলো যশোর কোতয়ালী থানাধীন বসুন্দিয়া গ্রামের মৃত আবু বকর সিদ্দিকের ছেলে হাসান আল মামুন রাজন (৩০) এবং চুয়াডাঙ্গার জীবননগর থানাধীন দেহাটি গ্রামের মোদাচ্ছের রহমানের ছেলে খাসিয়ার রহমান মিঠু (৪০)। সোমবার (৩রা এপ্রিল) জীবননগর থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

ডিবি জানায়, বেনাপোল পোর্ট থানাধীন বেনাপোল স্থল বন্দরের গেটের সামনে জনৈক আ. মান্নানের আছিয়া ট্রান্সপোর্ট নামে একটা প্রতিষ্ঠান আছে। মেসার্স সৈকত ট্রেডার্স, চাকতাই কোতয়ালী, চিটাগাং ভারত হতে বিভিন্ন মালামাল বাংলাদেশে আমদানি করে। আছিয়া ট্রেডার্স উক্ত প্রতিষ্ঠানের মালামাল দেশের বিভিন্ন জেলায় সরবরাহ করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় উক্ত ট্রেডার্সের আমদানিকৃত ছোলার মধ্যে হতে ৬৬৭ বস্তা ছোলা যার ওজন ২০ টন ৯০ কেজি, যার মূল্য ১৬ লক্ষ টাকা। যা, সাগর ট্রেডার্স রাজবাড়ীতে পাঠানোর জন্যে ২৮শে মার্চ ট্রাক লোড করে পাঠায়। পরবর্তীতে ট্রাকের ড্রাইভার ও মালিক মিলে আমদানিকৃত ছোলা আত্মসাৎ করে অন্যত্র বিক্রি করে দেয়। বাদীর উক্তরুপ অভিযোগের ভিত্তিতে বেনাপোল পোর্ট থানায় মামলা দায়ের করা হয়।

মামলা দায়েরের পর যশোর পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদারের সার্বিক দিকনির্দেশনায় যশোর জেলা গোয়েন্দা শাখার অফিসার ইনচার্জ রুপণ কুমার সরকারের তত্ত্বাবধানে এসআই নূর ইসলাম, এসআই শফি আহমেদ রিয়েল, এসআই শামীম হোসেনগনের সমন্বয়ে একটা চৌকস টিম তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় আসামিদের অবস্থান সনাক্ত করে সোমবার (৩রা এপ্রিল) চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ঘটনায় জড়িত আসামি হাসান আল মামুন রাজন এবং খাসিয়ার রহমান মিঠুকে গ্রেফতার করেন এবং আত্মসাৎকৃত ৬৬৭ বস্তা ছোলা উদ্ধার করেন।