ঢাকা ০৬:০০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঝিনাইদহ জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির নবনির্বাচিত সদস্যদের শপথ গ্রহন অনুষ্ঠিত

ঝিনাইদহ জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির দ্বিবার্ষিক নির্বাচনে নির্বাচিত সাংবাদিকদের শপথ গ্রহন ও পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।সোমবার সকাল ১১ টায় ঝিনাইদহ জেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে ঝিনাইদহ জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির নির্বাচন কমিশন এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। শপথ গ্রহন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য প্রদান করেন ঝিনাইদহ ১ আসনের বারবার নির্বাচিত সংসদ সদস্য ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাই।
সাংবাদিকের কলম সব সময় বস্তুনিষ্ঠতা এবং সত্য বিষয় তুলে ধরবে তা হলে অসত্য তাকে স্পর্শ করবে না এটাই স্বাভাবিক। তিনি বলেন মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে ভবিষ্যতেও এগিয়ে যাবে। তিনি আরো বলেন প্রধান মন্ত্রী ঘোষিত স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে সাংবাদিকদের এগিয়ে আসতে হবে। তিনি গতকাল সকালে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে ঝিনাইদহ জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির কার্যনির্বাহী পরিষদের নবনির্বাচিত সদস্যদের পরিচিতি ও শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। ঝিনাইদহ জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনের প্রধান নির্বাচন কমিশনার এবং জেলা তথ্য কর্মকর্তা মোঃ আবুবকর সিদ্দীক এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ঝিনাইদহ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এম হারুন অর রশিদ, পৌরসভার মেয়র কাইয়ূম শাহরিয়ার জাহেদী হিজল,জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম রেজা পিএএ,ঝিনাইদহ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ মো: সোহেল রানা
ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আমিনুর রহমান টুকু,ঝিনাইদহ জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি এনটিভি ও দৈনিক যুগান্তরের ষ্টাফ রিপোর্টার মিজানুর রহমান এবং ইউনিটির নির্বাচন কমিশনার ও জেলা সমবায় অফিসের পরিদর্শক মোঃ রুহুল আমিন মোল্যা। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন রিপোর্টার্স ইউনিটির নব-নির্বাচিত সভাপতি এম এ কবীর এবং সাধারণ সম্পাদক শাহিদুর রহমান সন্টু।
অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ,সাংস্কৃতিক,রাজনৈতিক,সাংবাদিক এবং মানবাধিকার সংগঠন ও সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ অংশ গ্রহন করেন। এর আগে জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির প্রধান নির্বাচন কমিশন ও জেলা তথ্য কর্মকর্তা আবুবকর সিদ্দীক নির্বাচিত ১৩ জন সদস্যকে শপথ বাক্য পাঠ করান। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বলেন, গণতান্ত্রিক ভোটের মাধ্যমে যারা নির্বাচিত হয়েছেন এবং শপথ বাক্য পাঠ করেছেন তারা যেন শপথের মর্যাদা রক্ষা করতে পারে সে বিষয়ে সচেতন থাকতে হবে। তা হলেই সাংবাদিকরা দেশের কল্যাণে কাজ করতে পারবে। তিনি বলেন আমি সব সময় সাংবাদিকদের পাশে ছিলাম এবং ভবিষ্যতেও সার্বিক সহযোগিতা করে যাবো। বিশেষ অতিথিবৃন্দ তাদের বক্তব্যে বলেন সাংবাদিকতা করতে করতে শিখতে হয়। মহান এ পেশায় শিক্ষিত প্রতিশ্রুতিশীল মানুষ এলে এ পেশার মান বাড়ে,মর্যাদা রক্ষা হয়,সমাজ,জাতী,রাষ্ট্র উপকৃত হয়। ঝিনাইদহ জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির সকল সদস্য সে কাজটিই করে যাচ্ছে।
উল্লেখ্য গত ১৮ ফেব্রুয়ারি শনিবার ইউনিটির দ্বি-বাষিক নির্বাচন ২০২৩-২০২৪ ঝিনাইদহ শহরের আব্দুর রকিব বালিকা বিদ্যালয় কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে সভাপতি পদে এম এ কবীর, সাধারণ সম্পাদক শাহিদুর রহমান সন্টু, সহ-সভাপতি মোঃ লিটন হোসেন এবং সিরাজুল ইসলাম মল্লিক, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান সুমন, সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদ হাসান, কোষাধ্যক্ষ সম্রাট শাহ, দপ্তর সম্পাদক মুক্তার হোসেন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এস এম রবি, সাংবাদিক ও সংবাদপত্র বিষয়ক সম্পাদক মোঃ ইব্রাহিম হোসেন, নির্বাহী সদস্য মাজেদ রেজা বাঁধন, এইচ এম ইমরান,ইমদাদুল হক,নির্বাচিত হন।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে যুদ্ধ বিরতি চুক্তিতে বাধা দেয়ার অভিযোগ

ঝিনাইদহ জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির নবনির্বাচিত সদস্যদের শপথ গ্রহন অনুষ্ঠিত

আপডেট সময় : ০১:৫০:২৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

ঝিনাইদহ জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির দ্বিবার্ষিক নির্বাচনে নির্বাচিত সাংবাদিকদের শপথ গ্রহন ও পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।সোমবার সকাল ১১ টায় ঝিনাইদহ জেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে ঝিনাইদহ জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির নির্বাচন কমিশন এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। শপথ গ্রহন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য প্রদান করেন ঝিনাইদহ ১ আসনের বারবার নির্বাচিত সংসদ সদস্য ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাই।
সাংবাদিকের কলম সব সময় বস্তুনিষ্ঠতা এবং সত্য বিষয় তুলে ধরবে তা হলে অসত্য তাকে স্পর্শ করবে না এটাই স্বাভাবিক। তিনি বলেন মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে ভবিষ্যতেও এগিয়ে যাবে। তিনি আরো বলেন প্রধান মন্ত্রী ঘোষিত স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে সাংবাদিকদের এগিয়ে আসতে হবে। তিনি গতকাল সকালে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে ঝিনাইদহ জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির কার্যনির্বাহী পরিষদের নবনির্বাচিত সদস্যদের পরিচিতি ও শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। ঝিনাইদহ জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনের প্রধান নির্বাচন কমিশনার এবং জেলা তথ্য কর্মকর্তা মোঃ আবুবকর সিদ্দীক এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ঝিনাইদহ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এম হারুন অর রশিদ, পৌরসভার মেয়র কাইয়ূম শাহরিয়ার জাহেদী হিজল,জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম রেজা পিএএ,ঝিনাইদহ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ মো: সোহেল রানা
ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আমিনুর রহমান টুকু,ঝিনাইদহ জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি এনটিভি ও দৈনিক যুগান্তরের ষ্টাফ রিপোর্টার মিজানুর রহমান এবং ইউনিটির নির্বাচন কমিশনার ও জেলা সমবায় অফিসের পরিদর্শক মোঃ রুহুল আমিন মোল্যা। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন রিপোর্টার্স ইউনিটির নব-নির্বাচিত সভাপতি এম এ কবীর এবং সাধারণ সম্পাদক শাহিদুর রহমান সন্টু।
অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ,সাংস্কৃতিক,রাজনৈতিক,সাংবাদিক এবং মানবাধিকার সংগঠন ও সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ অংশ গ্রহন করেন। এর আগে জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির প্রধান নির্বাচন কমিশন ও জেলা তথ্য কর্মকর্তা আবুবকর সিদ্দীক নির্বাচিত ১৩ জন সদস্যকে শপথ বাক্য পাঠ করান। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বলেন, গণতান্ত্রিক ভোটের মাধ্যমে যারা নির্বাচিত হয়েছেন এবং শপথ বাক্য পাঠ করেছেন তারা যেন শপথের মর্যাদা রক্ষা করতে পারে সে বিষয়ে সচেতন থাকতে হবে। তা হলেই সাংবাদিকরা দেশের কল্যাণে কাজ করতে পারবে। তিনি বলেন আমি সব সময় সাংবাদিকদের পাশে ছিলাম এবং ভবিষ্যতেও সার্বিক সহযোগিতা করে যাবো। বিশেষ অতিথিবৃন্দ তাদের বক্তব্যে বলেন সাংবাদিকতা করতে করতে শিখতে হয়। মহান এ পেশায় শিক্ষিত প্রতিশ্রুতিশীল মানুষ এলে এ পেশার মান বাড়ে,মর্যাদা রক্ষা হয়,সমাজ,জাতী,রাষ্ট্র উপকৃত হয়। ঝিনাইদহ জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির সকল সদস্য সে কাজটিই করে যাচ্ছে।
উল্লেখ্য গত ১৮ ফেব্রুয়ারি শনিবার ইউনিটির দ্বি-বাষিক নির্বাচন ২০২৩-২০২৪ ঝিনাইদহ শহরের আব্দুর রকিব বালিকা বিদ্যালয় কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে সভাপতি পদে এম এ কবীর, সাধারণ সম্পাদক শাহিদুর রহমান সন্টু, সহ-সভাপতি মোঃ লিটন হোসেন এবং সিরাজুল ইসলাম মল্লিক, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান সুমন, সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদ হাসান, কোষাধ্যক্ষ সম্রাট শাহ, দপ্তর সম্পাদক মুক্তার হোসেন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এস এম রবি, সাংবাদিক ও সংবাদপত্র বিষয়ক সম্পাদক মোঃ ইব্রাহিম হোসেন, নির্বাহী সদস্য মাজেদ রেজা বাঁধন, এইচ এম ইমরান,ইমদাদুল হক,নির্বাচিত হন।