ঢাকা ০৫:৩১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দ.আফ্রিকায় সড়ক দুর্ঘটনায় ৫ বাংলাদেশি নিহত

  • অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৮:২৫:২১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
  • 104

দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউনে সড়ক দুর্ঘটনায় পাঁচ বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। এছাড়া আহত হয়েছেন ২ জন। নিহতদের ৪ জনের গ্রামের বাড়ি ফেনীতে বলে জানা যায়। তাদের মধ্যে আবুল হোসেন নামের একজন ১৬ বছর পর দেশে ফিরছিলেন। বাকিরা মাঝে মধ্যে দেশে এসেছিলেন। তবে এখনো সবার বিস্তারিত পরিচয় জানা যায়নি।
শুক্রবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে বিষয়টি জানা গেছে।
দুর্ঘটনায় নিহতের বিষয়ে সাংবাদিক হোসাইন তারেক বলেন, দক্ষিণ আফ্রিকায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতরা ফেনীর বাসিন্দা। আমার ছোট বোনের শ্বশুর বাড়ির আত্মীয় ও আছে নিহতদের মধ্যে।
তিনি জানান, নিহত ও আহত প্রত্যেকে প্রায় ১৪ বছর পর বাড়িতে ফেরার জন্য এয়ারপোর্টে যাচ্ছিলেন। পথেই লরি চাপা দিলে ঘটনাস্থলে তাদের মৃত্যু হয়।
নিহত আবুল হোসেনের স্বজন নাজমুল জানান, আবুল হোসেনের বয়স ৩৫ বছর। তিনি ১৬ থেকে ১৭ বছর আগে দক্ষিণ আফ্রিকা গেছেন। তিনি সেখানে বিয়ে করেছিলেন। সেখানে জন্ম নেওয়া সন্তানকে নিয়ে দেশে আসতে গিয়ে দুর্ঘটনায় মারা গেছেন। তিনি বলেন, কাছাকাছি এলাকার চারজন মারা গেছে তাদের মধ্যে রাজু একবছর আগে গেছেন।
নিহতদের বিস্তারিত তথ্য এখনো পাননি জানিয়ে নাজমুল বলেন, এখনো পুরো তথ্য পাইনি। রাতে হয়তো পাবো। যারা মারা গেছেন সবাই দেশে আসছিলেন না। তাদের বিমানবন্দরে পৌঁছে দিতে যারা আসছিলেন তারাও মারা গেছেন কিনা নিশ্চিত হতে পারিনি।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে যুদ্ধ বিরতি চুক্তিতে বাধা দেয়ার অভিযোগ

দ.আফ্রিকায় সড়ক দুর্ঘটনায় ৫ বাংলাদেশি নিহত

আপডেট সময় : ০৮:২৫:২১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউনে সড়ক দুর্ঘটনায় পাঁচ বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। এছাড়া আহত হয়েছেন ২ জন। নিহতদের ৪ জনের গ্রামের বাড়ি ফেনীতে বলে জানা যায়। তাদের মধ্যে আবুল হোসেন নামের একজন ১৬ বছর পর দেশে ফিরছিলেন। বাকিরা মাঝে মধ্যে দেশে এসেছিলেন। তবে এখনো সবার বিস্তারিত পরিচয় জানা যায়নি।
শুক্রবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে বিষয়টি জানা গেছে।
দুর্ঘটনায় নিহতের বিষয়ে সাংবাদিক হোসাইন তারেক বলেন, দক্ষিণ আফ্রিকায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতরা ফেনীর বাসিন্দা। আমার ছোট বোনের শ্বশুর বাড়ির আত্মীয় ও আছে নিহতদের মধ্যে।
তিনি জানান, নিহত ও আহত প্রত্যেকে প্রায় ১৪ বছর পর বাড়িতে ফেরার জন্য এয়ারপোর্টে যাচ্ছিলেন। পথেই লরি চাপা দিলে ঘটনাস্থলে তাদের মৃত্যু হয়।
নিহত আবুল হোসেনের স্বজন নাজমুল জানান, আবুল হোসেনের বয়স ৩৫ বছর। তিনি ১৬ থেকে ১৭ বছর আগে দক্ষিণ আফ্রিকা গেছেন। তিনি সেখানে বিয়ে করেছিলেন। সেখানে জন্ম নেওয়া সন্তানকে নিয়ে দেশে আসতে গিয়ে দুর্ঘটনায় মারা গেছেন। তিনি বলেন, কাছাকাছি এলাকার চারজন মারা গেছে তাদের মধ্যে রাজু একবছর আগে গেছেন।
নিহতদের বিস্তারিত তথ্য এখনো পাননি জানিয়ে নাজমুল বলেন, এখনো পুরো তথ্য পাইনি। রাতে হয়তো পাবো। যারা মারা গেছেন সবাই দেশে আসছিলেন না। তাদের বিমানবন্দরে পৌঁছে দিতে যারা আসছিলেন তারাও মারা গেছেন কিনা নিশ্চিত হতে পারিনি।