ঢাকা ০২:৩৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ধুনটে শশুর শাশুড়ীর সম্পত্তি জবর দখল করে শ্যালককে বঞ্চিত করার অভিযোগ দুলাভাইয়ের বিরুদ্ধে

ধুনট(বগুড়া) প্রতিনিধি:
বগুড়ার ধুনটে ঘরজামাতা শশুর শাশুড়ীকে পিতামাতা বানিয়ে শ্যালকের সম্পত্তি জবর দখল করেছে। এঘটনায় ধুনট থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চৌকিবাড়ি ইউনিয়নের থেউকান্দি গ্রামের  জসিমুদ্দিন ও তার স্ত্রী সামেলা খাতুন, মেয়ে রবিয়া খাতুন ও সাত মাসের  শিশু ছেলে মোংলা ওরফে দুখু মিয়াকে রেখে প্রায় ৩০ বছর পূর্বে মারা যায়। এরপর জসিমুদ্দিনের স্বজনেরা রুরিয়াকে গোপালনগর ইউনিয়নের বানিয়াগাতি গ্রামের সাবেদ আলীর ছেলে বদিউজ্জামানের সাথে বিয়ে দেয়।  বদিউজ্জামান স্ত্রী রুবিয়াকে নিয়ে ঘরজামাতা হিসাবে শশুর বাড়িতে বসবাস শুরু করে।  শিশু ছেলে মোংলা ওরফে দুখু মিয়া মামার বাড়িতে লালিত পালিত হয়। সুযোগ কাজে লাগিয়ে বদিউজ্জামান শশুর জসিমুদ্দিনকে বাবা ও শাশুড়ি সামেলা খাতুনকে মা বানিয়ে চৌকিবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ থেকে গোপনে জন্মনিবন্ধন করে এবং ভূয়া কাগজ পত্র তৈরী করে শ্যালক মোংলা ওরফে দুখু মিয়ার ২ বিঘা জমি দখল করে ঘরবাড়ি নির্মানের চেষ্টা চালায়। এবিষয়ে মোংলা ওরফে দুখু মিয়া ধুনট থানায়  ভগ্নিপতি বদিউজ্জামানের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দেয়। ধুনট থানার ওসি রবিউল ইসলাম  বলেন, দুখু মিয়ার অভিযোগ তদন্ত করে ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় বদিউজ্জামানকে  ঘরবাড়ি নির্মানে নিষেধ করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে উভয় পক্ষের কাগজ পত্র দেখে পরবর্তী সিদ্ধান্ত দেওয়া হবে।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে যুদ্ধ বিরতি চুক্তিতে বাধা দেয়ার অভিযোগ

ধুনটে শশুর শাশুড়ীর সম্পত্তি জবর দখল করে শ্যালককে বঞ্চিত করার অভিযোগ দুলাভাইয়ের বিরুদ্ধে

আপডেট সময় : ০৭:৫০:৩১ অপরাহ্ন, রবিবার, ৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

ধুনট(বগুড়া) প্রতিনিধি:
বগুড়ার ধুনটে ঘরজামাতা শশুর শাশুড়ীকে পিতামাতা বানিয়ে শ্যালকের সম্পত্তি জবর দখল করেছে। এঘটনায় ধুনট থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চৌকিবাড়ি ইউনিয়নের থেউকান্দি গ্রামের  জসিমুদ্দিন ও তার স্ত্রী সামেলা খাতুন, মেয়ে রবিয়া খাতুন ও সাত মাসের  শিশু ছেলে মোংলা ওরফে দুখু মিয়াকে রেখে প্রায় ৩০ বছর পূর্বে মারা যায়। এরপর জসিমুদ্দিনের স্বজনেরা রুরিয়াকে গোপালনগর ইউনিয়নের বানিয়াগাতি গ্রামের সাবেদ আলীর ছেলে বদিউজ্জামানের সাথে বিয়ে দেয়।  বদিউজ্জামান স্ত্রী রুবিয়াকে নিয়ে ঘরজামাতা হিসাবে শশুর বাড়িতে বসবাস শুরু করে।  শিশু ছেলে মোংলা ওরফে দুখু মিয়া মামার বাড়িতে লালিত পালিত হয়। সুযোগ কাজে লাগিয়ে বদিউজ্জামান শশুর জসিমুদ্দিনকে বাবা ও শাশুড়ি সামেলা খাতুনকে মা বানিয়ে চৌকিবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ থেকে গোপনে জন্মনিবন্ধন করে এবং ভূয়া কাগজ পত্র তৈরী করে শ্যালক মোংলা ওরফে দুখু মিয়ার ২ বিঘা জমি দখল করে ঘরবাড়ি নির্মানের চেষ্টা চালায়। এবিষয়ে মোংলা ওরফে দুখু মিয়া ধুনট থানায়  ভগ্নিপতি বদিউজ্জামানের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দেয়। ধুনট থানার ওসি রবিউল ইসলাম  বলেন, দুখু মিয়ার অভিযোগ তদন্ত করে ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় বদিউজ্জামানকে  ঘরবাড়ি নির্মানে নিষেধ করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে উভয় পক্ষের কাগজ পত্র দেখে পরবর্তী সিদ্ধান্ত দেওয়া হবে।