ঢাকা ০৮:৫০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সুন্দরগঞ্জে স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে হেনস্থা

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবুল ফাত্তাহকে হেনস্থা করেছেন অধীনস্থ চিকিৎসক, সেবক-সেবিকাসহ অন্যান্য কর্মচারীগণ।

জানা যায় বৃহস্পতিবার দুপুরে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার অপসারণ দাবিতে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স প্রাঙ্গণে মানববন্ধন করেছে ডাক্তার, নার্সসহ অন্যান্য কর্মচারীগণ। এরআগে সকালে ডা. আবুল ফাত্তাহ অফিসে আসলে তার অধীনস্থ চিকিৎসক, সেবক ও অন্যান্য কর্মচারী অফিস কক্ষে অবরোধ,গালমন্দ,হুমকি ধামকি প্রদর্শন করেন। এরপর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্বরে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, মেডিকেল আবাসিক অফিসার ডা. রেজওয়ান আহমেদ, ডা. শাকিরা বিল্লাহ, সিনিয়র স্টাফ নার্স ফজলুল হক, সেনেটারী ইন্সপেক্টর শহিদুল ইসলাম, নার্স সুপার ভাইজার জুলেখা বেগম, শিরিনা আক্তার, সাজিনা বেগম প্রমুখ। এসময় বক্তাগণ ডা. আবুল ফাত্তাহ’র বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে ধরে অপসারণের দাবি জানান। এছাড়া বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ পত্র দাখিল করেন।
এব্যাপারে কথা হলে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবুল ফাত্তাহ বলেন, এম্বুলেন্স চালক রোগী পরিবহন ফি বাবদ ৬ লাখ ৫৬ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেছে। ৭ জন নার্সকে বিভিন্ন উপ স্বাস্থ্য কেন্দ্রে পাঠানো, স্বাস্থ্য সহকারি আবু মেইজ ইলিয়াস মিয়া অফিসিয়াল (পরিসংখ্যান) কার্যক্রম থেকে তার স্ব-দায়িত্বে পাঠানো, বিভিন্ন অনিয়মের কারণে স্থাগিতকৃত বেতন ছাড় না দেয়ায়, তারা ষড়যন্ত্রমূলক হেনস্থা করেছে। এ ষড়যন্ত্রে লিপ্ত থেকে নানান অশ্লীল ভাষায় গালমন্দকারী বীর মুক্তিযোদ্ধা সন্তান পরিচয়দাতা হারুন উর রশীদ ২০২১ সালে মহান স্বাধীনতা দিবসের কর্মসূচীতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করায় তাকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে থেকে শাস্তিমূলক বদলী করা হয়। সে এখানে কোন দায়িত্বে নেই। তবুও সে অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করেছে। তিনি বলেন তার বিরুদ্ধে যারা ষড়যন্ত্র করছে, তারা কোন না কোন অযৌক্তিক সুবিধা বঞ্চিত হয়েছে। এরই ফলশ্রুতিতে অন্যায়ভাবে তার বদলী দাবী করছে বলে মনে করেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও প: প: কর্মকর্তা ডা. আবুল ফাত্তাহ।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে যুদ্ধ বিরতি চুক্তিতে বাধা দেয়ার অভিযোগ

সুন্দরগঞ্জে স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে হেনস্থা

আপডেট সময় : ০৭:৩৯:৫৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ ২০২৩

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবুল ফাত্তাহকে হেনস্থা করেছেন অধীনস্থ চিকিৎসক, সেবক-সেবিকাসহ অন্যান্য কর্মচারীগণ।

জানা যায় বৃহস্পতিবার দুপুরে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার অপসারণ দাবিতে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স প্রাঙ্গণে মানববন্ধন করেছে ডাক্তার, নার্সসহ অন্যান্য কর্মচারীগণ। এরআগে সকালে ডা. আবুল ফাত্তাহ অফিসে আসলে তার অধীনস্থ চিকিৎসক, সেবক ও অন্যান্য কর্মচারী অফিস কক্ষে অবরোধ,গালমন্দ,হুমকি ধামকি প্রদর্শন করেন। এরপর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্বরে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, মেডিকেল আবাসিক অফিসার ডা. রেজওয়ান আহমেদ, ডা. শাকিরা বিল্লাহ, সিনিয়র স্টাফ নার্স ফজলুল হক, সেনেটারী ইন্সপেক্টর শহিদুল ইসলাম, নার্স সুপার ভাইজার জুলেখা বেগম, শিরিনা আক্তার, সাজিনা বেগম প্রমুখ। এসময় বক্তাগণ ডা. আবুল ফাত্তাহ’র বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে ধরে অপসারণের দাবি জানান। এছাড়া বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ পত্র দাখিল করেন।
এব্যাপারে কথা হলে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবুল ফাত্তাহ বলেন, এম্বুলেন্স চালক রোগী পরিবহন ফি বাবদ ৬ লাখ ৫৬ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেছে। ৭ জন নার্সকে বিভিন্ন উপ স্বাস্থ্য কেন্দ্রে পাঠানো, স্বাস্থ্য সহকারি আবু মেইজ ইলিয়াস মিয়া অফিসিয়াল (পরিসংখ্যান) কার্যক্রম থেকে তার স্ব-দায়িত্বে পাঠানো, বিভিন্ন অনিয়মের কারণে স্থাগিতকৃত বেতন ছাড় না দেয়ায়, তারা ষড়যন্ত্রমূলক হেনস্থা করেছে। এ ষড়যন্ত্রে লিপ্ত থেকে নানান অশ্লীল ভাষায় গালমন্দকারী বীর মুক্তিযোদ্ধা সন্তান পরিচয়দাতা হারুন উর রশীদ ২০২১ সালে মহান স্বাধীনতা দিবসের কর্মসূচীতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করায় তাকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে থেকে শাস্তিমূলক বদলী করা হয়। সে এখানে কোন দায়িত্বে নেই। তবুও সে অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করেছে। তিনি বলেন তার বিরুদ্ধে যারা ষড়যন্ত্র করছে, তারা কোন না কোন অযৌক্তিক সুবিধা বঞ্চিত হয়েছে। এরই ফলশ্রুতিতে অন্যায়ভাবে তার বদলী দাবী করছে বলে মনে করেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও প: প: কর্মকর্তা ডা. আবুল ফাত্তাহ।